1. darilymukitdak@gmail.com : Mukti TV HD : Mukti TV HD
  2. info@muktitv24.com : muktitv :
  3. banglahost.net@gmail.com : rahad :
শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১০:৩১ অপরাহ্ন

ফুপু ও চাচার বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নিয়ে আদালতের সমন জারী ।।

এম এইচ রনি,নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি:
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৬২ Time View

নীলফামারীতে ভাতিজার কাছে জমি বিক্রয়ের নামে প্রতারণা করায় অভিযুক্ত ফুপু ও চাচার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ আমলে নিয়ে আদালত তাদের নামে সমন জারী করেছে।
নীলফামারী সদর উপজেলার ইটাখোলা দরবেশ পাড়ার বাসিন্দা ভাতিজা ফরহাদ নওরোজ নাহিন অভিযুক্ত তার ফুপু জেলা শহরের সবুজ পাড়ার মীর সেলিম ফারুকের স্ত্রী তাজনুর আফছানা ও তার চাচা একেএম আমিনুল হক কর্তৃক জমি ক্রয় নিয়ে প্রতারণার শিকার হয় ভাতিজা নাহিন। এই প্রতারণা কে কেন্দ্র করে ভুক্তভোগী আদালতে একটি মামলা দায়ের করে (মামলা নং- সি.আর ৩৫১/২১)।
উক্ত মামলায় অভিযুক্তদের উপর আনিত অভিযোগ আমলে নিয়ে আসামীদের বিরুদ্ধে পেনাল কোড ১৮৮০ এর ৮২০/৩৪ ধারায় সমন ইস্যু করে আদালত। আগামী ২৬ অক্টোবর সমন ফেরতের দিন ধার্য করা হয়েছে।প্রসঙ্গত, মোটা অঙ্কের টাকার বিনিময়ে দুইবার বিভিন্ন দাগে জমি লিখে দেওয়ার নামে প্রতারণা করে ফুফু। ফুপুর কাছে সরল মনে ভাতিজা দুইবার যে জমিগুলো ক্রয় করে সত্যিকার অর্থে সে যায়গা গুলোতে ফুফুর নামে কোনো জমি নেই।এ প্রতারণার সাথে জড়িত ছিল চাচা একেএম আমিনুল হক। ভাতিজা নাহিন তার ফুফু তাজনুর আফছানাকে একাধিকবার ফোনে ও বাড়িতে গিয়ে জানালেও ফুফু এর সুষ্ঠু সমাধানের জন্য কোনো পদক্ষেপ নেয় নি।
নীলফামারীতে জমি-জমা সংক্রান্ত বিষয়ে আপন চাচার কাছে প্রতারণার শিকার ভাতিজা ফরহাদ নওরোজ নাহিন আইনের সহায়তা নিলে তাকে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি দেওয়ার ঘটনা তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে।এ ঘটনায় অভিযুক্ত হলেন জেলা শহরের সবুজ পাহাড়ার বাসিন্দা আমিনুল হক (৭০) ও তার সহযোগী মোঃ শামীম হোসেন(৪০)।
তদন্তে প্রতিবেদনে ভাতিজা নাহিনকে সকল মামলা তুলে নেওয়ার জন্য হুমকী প্রদান করার বিষয়ে সত্যতা পায় তদন্ত কর্মকর্তা।তদন্ত প্রতিবেদন সূত্র জানায়, ভুক্তভোগী নাহিনের পিতার মৃত্যুর পর থেকে তার চাচা আমিনুল হকের কাছে তাদের পৈত্রিক সম্পত্তির অংশ দাবী করেন।চাচা আমিনুল ভাতিজা নাহিনের দাবীকৃত পৈত্রিক সুত্রে প্রাপ্ত জমি প্রদানে বিভিন্ন অজুহাত কালক্ষেপন করতে থাকেন।উক্ত বিষয় সমাধানের জন্য পারিবারিক ভাবে একাধিবার বৈঠক হলেও নাহিনের চাচা বিষয়টি সমাধান করার কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ নেয় না। যার ফলে নাহিন আইনের সহায়তার জন্য চাচার বিরুদ্ধে সিভিল মামলা নং-৪৪/২১, জিআর-৭৫/২০, সিআর-৪৪৭/২০, পিটিশন-১১৯/২০, সিআর-১৮৯/২১. সিআর-২৩১/২১, মামলা দায়ের করেন। যা বিজ্ঞ আদালতে বিচারাধীন আছে।
উপরুক্ত মামলা গুলো তুলে নেওয়ার জন্য গত ২০ এপ্রিল দুপুরে হাজি মহসিন সড়কে চাচা নাহিনকে তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা প্রত্যাহার করার জন্য হুমকী দেয়।নাহিন তার দাবীকৃত পৈত্রিক জমি না পাওয়া পর্যন্ত মামলা প্রত্যাহার করবে না বলে জানালে চাচা আমিনুল হক ও তার সহযোগী শামিম হোসেন ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে। ঘটনার এক পর্যায়ে আমিনুল হক নাহিনকে খারাপ ভাষায় গালিগালাজ করে এবং তার সহযোগী শামিম হোসেন ধারালো অস্ত্র দেখিয়ে নানা ধরনের হুমকি প্রদর্শন করেন।
নাহিন আরো জানান মামলা না উঠালে আমাকে জানে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।
প্রসঙ্গত, এঘটনাকে কেন্দ্র করে ভুক্তভোগী নাহিন গত ১লা মে থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে। যার জিডি নং-৫০।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published.

More News Of This Category